মোঃ হাসানুর রহমান হাসু, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ।।

ঝিনাইদহের মহেশপুর্ উপজেলায় ব্যবসায়িক লেনদেন কেন্দ্র করে দুই জনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ শামীম হোসেন (৩২) ঘটনাস্থলে মারা। আর মন্টু মিয়ার জীবননগর হাসপাতালে মৃত্যু হয়। বুধবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় মহেশপুর থানার পুলিশ নিহতের তথ্য নিশ্চিত করা হয়।
নিহত শামীম হোসেন উপজেলার বাঘাডাঙ্গা গ্রামের শামসুল হকের এবং মন্টু মিয়া একই গ্রামের নয়ন মন্ডলের ছেলে।
এলাকাবাসী জানান, শামীম ও মন্টু সম্পর্কে চাচা ও ভাতিজা। তারা ধনিয়ার পাতার ব্যবসা করতেন। সেই ব্যবসার লেনদেন ছিল একই এলাকার তরিকুল ইসলাম আকাল ও ইব্রার সঙ্গে। শামীম ও মন্টু ব্যবসায়িক কারণে আকালে ও ইব্রার কাছে কিছু টাকা পেতেন। সেই টাকা নিয়ে তাদের মধ্যে কয়েকবার কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরে বিকেলে শামীম ও মন্টু একই গ্রামের আকালের বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় ঘরের ছাদ থেকে ইব্রা ও আকাল আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে শামীম ঘটনাস্থলে মারা যায়। গুলিবিদ্ধ মন্টুকে এলাকাবাসী ও স্বজনরা জীবননগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান গুলিতে দুই জনের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে আছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।