নড়াইল জেলা প্রতিনিধি।

নড়াইলের লোহাগড়ায় মা-মেয়েকে পেটানোর ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ৬ জনের নাম উল্লেখ ও ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে লোহাগড়া থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী লাবনি আক্তার। লোহাগড়া থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক তৌফিক হাসান শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন- লোহাগড়া পৌরসভার মশাঘুনি গ্রামের নাজিম উদ্দিন দেওয়ান (৫৫) তার স্ত্রী বিউটি বেগম (৪৫) দুই ছেলে আলিফ দেওয়ান (২০) ও কিরন দেওয়ান (২৭), জয়পুর গ্রামের হাফিজার শেখ (৫৫) এবং তার স্ত্রী রিভা বেগম (৫০)। এছাড়া আরো ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জেরে গত বুধবার সকালে মশাঘুনি গ্রামের ওহিদুজ্জামানের ভাড়া বাড়িতে ভুক্তভোগী লাবনি আক্তারের (৫০) মেয়ে ময়না বেগমকে (২৮) খুন করার উদ্দেশ্যে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ও শ্লীলতাহানি ঘটায় এজাহারভুক্ত আসামিরা। পরে তাকে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপরে ময়না বেগমের মা লাবনি আক্তার ওই বাড়িতে গিয়ে এ ঘটনার বিচার চেয়ে আহাজারি করলে আসামিরা পুনরায় এসে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে এবং গলা টিপে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় আসামিরা স্বর্ণ ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার বাদী ও ভুক্তভোগী লাবনি আক্তার বলেন, আমি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জানাচ্ছি। এদিকে, মামলার পরে আসামিরা পলাতক থাকায় তাদের কারো বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।